LATEST
বগুড়ায় চোর সন্দেহে পায়ে পেরেক ঢুকিয়ে যুবককে নির্যাতন বগুড়ায় বিশেষ অভিযানে রেলওয়ে জায়গায় উদ্ধার ও ১৬ দোকান সিলগালা মুজিববর্ষে বগুড়ায় ঘর ও জমি পাচ্ছে আরও ৮৫৭ গৃহহীন পরিবার মুজিববর্ষে ঝিনাইদহে ৭০৫ গৃহহীন পরিবার ঘর পাচ্ছে চাঁপাইনবাবগঞ্জে শতাধিক বেনামি আম নামকরণের উদ্যোগ মোরেলগঞ্জে মুজিবর্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের গৃহ হস্তান্তর বিষয়ক প্রেস ব্রিফিং ঝিনাইদহে পুলিশ কর্মকর্তা দুই ভাইয়ের মৃত্যু,গ্রামজুড়ে চলছে শোকের মাতম! ঝিনাইদহ সীমান্ত থেকে সাড়ে ৫ মাসে ৯২৮ জন আটক! বাজেটে মহার্ঘ ভাতাসহ ৮ দফা দাবি ১১-২০ গ্রেডের চাকরিজীবীদের পাবনায় দ্বিতীয় ধাপে ৩৩৭পরিবার পাচ্ছে ‘স্বপ্নের নীড়’

মালবাহী ট্রেনে যাচ্ছে যাত্রী

সারা দেশে ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ থাকলেও জরুরী মালামাল পরিবহনে রেলওয়ে বিভিন্ন রুটে কিছু পার্সেল ট্রেন চালু রয়েছে। এসব পার্সেল ট্রেনে মালামাল ছাড়া যাত্রী বহন নিষিদ্ধ থাকলেও বর্তমানে সকল পার্সেল ট্রেনে অবাধে যাত্রী বহন করছে রেলওয়ের কিছু অসাধু কর্মচারী। একই সাথে ট্রেনে দায়িত্বরত রেল নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যদের সহয়তায় চলছে মাদক পরিবহন।  সম্প্রতি র‌্যাব একটি পার্সেল ট্রেন থেকে ২৮২ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল উদ্ধার এবং নিরাপত্তাবাহিনী ও রেলওয়ে বিদ্যুৎ বিভাগের দুই সদস্যসহ চারজনকে গ্রেফতার করে । শুক্রবার আদমদীঘির সান্তাহার রেলওয়ে জংশন ষ্টেশনে গিয়ে দেখা গেছে, চিলাহাটি থেকে খুলনাগামীসহ বিভিন্ন রুটে পার্সেল ট্রেন চলাচল করছে। সেই পার্সেল ট্রেনের একমাত্র যাত্রীবাহি কামড়ায় ঠাসাটাসি করে বসে রয়েছে শতাধিক যাত্রী। আবার ট্রেনটি বিভিন্ন ষ্টেশনে থামার পর ট্রেন থেকে নেমে যায় বেশ কিছু যাত্রী। বেশিরভাগ যাত্রীর মুখে নেই কোন মাস্ক বা সামাজিক দুরত্ব। ছবি তুলতে গেলে অনেকে কাপড়ে মুখ ঢেকে ফেলেন। গত সোমবার রাতে র‌্যাব পার্সেল স্পেশাল একটি ট্রেনের বগি থেকে ২৮২ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধারসহ রেলওয়ে নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্য, রেলওয়ে বিদ্যুত বিভাগের কর্মিসহ ৪জনকে গ্রেফতার করে সান্তাহার জিআলপি থানায় সোপর্দ করে একটি মামলা করেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ট্রেনের পরিচালক (গার্ড) বলেন, কামড়ায় যে সকল যাত্রী রয়েছে তাঁদের অধিকাংশ রেলওয়ে কর্মচারী বা স্বজন । এ কারনে তাঁদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া যায় না । তিনি বলেন, সব পার্সেল ট্রেনেই একই অবস্থা । সন্তাহার ষ্টেশন মাস্টার হাবিবুর রহমান বলেন, যাত্রীদের পার্সের ট্রেনে না ওঠার জন্য জন্য আমরা নিষেধ করছি কিন্তু বেশিরভাগ যাত্রী রেল সংস্লিষ্ট হওয়ায় কিছু করা যাচ্ছে না। মাদক পরিবহনের বিষয়ে তিনি বলেন, এ বিষয়টি তদারকির জন্য ট্রেনে জিআরপি পুলিশ ও নিরাপত্তাবাহিনী রয়েছে। দেখভাল করার দায়িত্ব তাদের। তারা দায়িত্ব পালন না করে তাহলে আমাদের করার কিছুই থাকে না। পার্সেল ট্রেনে অবাদে যাত্রী বহন বন্ধ প্রয়োজন বলে অভিজ্ঞ মহল মনে করেন।

 

Comments: