সৈয়দপুরে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের হাতাহাতিতে নিহত ১, আহত ২

নীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভার পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে  হাতাহাতির ঘটনায় ছোটন অধিকারী (৫২) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। রবিবার(২৮ ফেব্রুয়ারি)দুপুরের দিকে নির্বাচন চলাকালে পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়র্ডের মহিলা কলেজ কেন্দ্রের অদুরে এ ঘটনা ঘটে। তিনি ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী নজরুল ইসলামের (ব্রীজ) সমর্থক বলে জানা গেছে। এঘটনায় আহত হয়ে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন দুইজন। নিহত ছোটন অধিকারী শহরের মুন্সিপাড়া মহল্লার মৃত নিতাই অধিকারীর ছেলে।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ওই ভোটকেন্দ্রের বাইরে কাউন্সিলর প্রার্থী নজরুল ইসলামের সমর্থক ছোটন অধিকারীর সঙ্গে অপর কাউন্সিলর প্রার্থী সাদেকুজ্জামান দিনার (উট পাখি) ও আখতার হোসেন ফেকুর (পাঞ্জাবী) সমর্থকদের তর্কের এক পর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এসময় ছোটন অধিকারী অসুস্থ হলে সৈয়দপুর ১০০ শর্যা হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করা করেন।কাউন্সিলর প্রার্থী নজরুল ইসলাম তার সমর্থক ছোটনকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ করে বলেন,‘উট পাখি এবং পাঞ্জাবীর সমর্থকরা আমার সমর্থক ছোটনকে পিটিয়ে হত্যা করেছেন। এ ঘটনায় আজম আলী সরকার (৪৫) ও সবুজ হোসেন (৩০) নামে আমার অপর দুই কর্মী আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।অপরদিকে কাউন্সিলর প্রার্থী সাদেকুজ্জামান দিনার ও আখতার হোসেন ফেকু অভিযোগ অস্বীকার করে দাবি করেন,‘ছোটন অধিকারী হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। আমাদের জানামতে সে উচ্চ রক্তচাপের রোগি ছিলেন।সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা রাশেদুজ্জামান বলেন,৫২ বছর বয়সী ছোটন অধিকারীকে মৃত অবস্থায় তার স্বজনরা তাকে হাসপাতালে নিয়ে এসেছিলেন।সৈয়দপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল হাসনাত খান বলেন,কোন কেন্দ্রে কোন ধরণের সহিংসতা ঘটেনি। ছোটন অধিকারীর মৃত্যুর বিষয়ে আমরা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে জানতে পেরে হাসপাতালে পুলিশ পাঠিয়ে ঘটনাটি তদন্ত করছি। এ ব্যাপারে এখন পর্যন্ত(বিকেল সাড়ে ৫টা) থানায় কেউ অভিযোগ দায়ের করেনি।

 

Comments: