পৌরসভা নির্বাচন; বিজিবি কর্মকর্তাদের অসৌজন্যমুলক আচরণে হেবিওয়েট সাংবাদিকদের চরম ক্ষোভ, নিন্দা ও প্রতিবাদ জ্ঞাপন

ঝিনাইদহের মহেশপুর পৌরসভা নির্বাচনে পেশাগত দ্বায়িত্ব পালনরত সাংবাদিকদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণের অভিযোগ উঠেছে  মহেশপুরের ৫৮ বিজিবির অধিনায়ক কামরুল আহসানের বিরুদ্ধে। রোববার (২৮ ফেব্রয়ারি) সকালে মহেশপুরের বেগমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের সামনে এ ঘটনা ঘটে। সাংবাদিকদের অভিযোগ, সকালে বেসরকারি টেলিভিশন নিউজ টোয়েন্টিফোর ও বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি শেখ রুহুল আমিন লাইভ সংবাদ পরিবেশনের জন্য প্রস্তুুতি নিচ্ছিলেন। পাশে দাঁড়িয়ে ছিল চ্যানেল টোয়েন্টিফোর'র জেলা প্রতিনিধি সাদ্দাম হোসেন ও সময় সংবাদের জেলা প্রতিনিধি লোটাস রহমান সোহাগ। এসময় ৫৮ বিজিরি সিও কামরুল আহসান সেখানে এসে সাংবাদিকদের মোবাইল কেড়ে নেন। তিনি সাংবাদিকদের কেন্দ্র থেকে বাইরে চলে যেতে বলেন এবং অসৌজন্যমূলক আচরণ শুরু করেন। সংবাদকর্মীরা বিষয়টি ভিডিও ধারণ করতে গেলে তাদের মোবাইল কেড়ে নেয় অপর এক বিজিবি সদস্য। পরে মোবাইল ফেরৎ দিয়ে তিনি সেখান থেকে চলে যান। বিষয়টির নিন্দা জানিয়েছেন জেলায় কর্মরত সংবাদকর্মীরা। চ্যানেল টোয়েন্টিফোর'র প্রতিনিধি সাদ্দাম হোসেন বলেন, আমরা ভোট কেন্দ্রের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলাম। হঠাৎ করে ওই কর্মকর্তা এসে আমাদের কাজে বাঁধা দেন এবং মোবাইল কেড়ে নেন। তার আচরণ মারমুখি ছিল। আমরা এটা আশা করিনি। এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সভাপতি এম রায়হান বলেন, পেশাগত দ্বায়িত্ব পালনের সময় বিজিবির একজন ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তার এমন অসদাচারণ মোটেও কাম্য নয়। তিনি পেশাগত দ্বায়িত্ব পালনের বাধা দিয়েছেন যা নিন্দনীয়। আমরা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

 

Comments: