হাজার হাজার মুসল্লীর উপস্থিতিতে মাওলানা জহুরুল ইসলামের জানাজা সম্পন্ন

হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে সম্পন্ন হয়েছে ‘বড় হুজুর’ খ্যাত প্রখ্যাত আলেম হযরত মাওলানা মো: জহুরুল ইসলাম সাহেবের নামাজে জানাজা। হুজুরের নিজ হাতে গড়া বিশাল পরিসরের দ্বীনি প্রতিষ্ঠান বেলজানী-খরসূতী কাসেমুল উলুম মাদ্রাসার খোলা মাঠে সোমবার (২২.০২.২০২১) সকাল ১০টায় হাজার হাজার মুসল্লীর অংশ গ্রহণে জানাজা শেষে মাদ্রাসার হেফজ খানার সামনে তাঁকে দাফন করা হয়। জানাজা নামাজে ইমামতী করেন আহিরদিয়া মাদ্রাসার মোহতামেম প্রখ্যাত আলেম হযরত মাওলানা মো: আকরাম আলী ওরফে ধলা হুজুর। উপস্থিত ছিলেন, বোয়ালমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম এম মোশাররফ হোসেন, পরিচালনা করেন স্থানীয় চেয়ারম্যান নাসির মোহাম্মদ সেলিম। জানাজা পূর্ব সমাবেশে হুজুরের জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেন, দক্ষিন বাংলার বিশিষ্ট্য আলেম-ওলেমাগণ।

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার বেলজানী-খরসূতী কাসেমুল উলুম মাদ্রাসার বড় হুজুর বিশিষ্ট্য ইসলাম দরদী আলহাজ্ব হযরত মাওলানা মো: জহুরুল ইসলাম রবিবার আছর নামাজ সমাপনান্তে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। (ইন্নালিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাহে রাজিউন)। বেশ কিছুদিন যাবৎ তিনি বার্ধক্য জনিত রোগে ভ‚গছিলেন। মৃত্যুকালে হুজুরের বয়স হয়েছিল ৯৫বছর। তিনি ৫ পুত্র এবং ২ কন্যাসহ অসংখ্য স্বজন ও গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। মাওলানা জহুরুল ইসলাম রোববার আসরের নামাজ আদায় করার সাথে সাথে অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং অল্প সময়ের মধ্যেই তিনি পরপাড়ে পাড়ি জমান। মূহুর্তের মধ্যে তাঁর মৃত্যু সংবাদ চারিদিকে ছড়িয়ে পড়লে মাদ্রাসা এবং তৎসংলগ্ন এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। মাদ্রাসার ছাত্র শিক্ষক এবং শত শত ভক্ত অনুরাগীগণ কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। মরহুম জহুরুল ইসলাম তাঁর জীবদ্দশায় ছোট বড় ২৯টি মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করেছেন বলে সুত্র জানিয়েছে। 

মাওলানা জুহুরুল ইসলামের মৃত্যুতে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম মেম্বার সাবেক সংসদ সদস্য মো: আব্দুর রহমান গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি এক শোকবার্তায় মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। এ ছাড়াও শোক প্রকাশ করেন, সাবেক এমপি আলহাজ্ব কাজী সিরাজুল ইসলাম, সাবেক এমপি, বিএনপি নেতা শাহ মো: আবু জাফর, বোয়ালমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম এম মোশাররফ হোসেন মুশা, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য, সাবেক ছাত্রনেতা মো: আব্দুল্লাহ আল মামুন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক শাহজাহন মৃধা পিকুল, সহ সভাপতি, সাবেক ছাত্রনেতা মো: আসাদুজ্জামান মিন্টু, জেলা পরিষদ সদস্য মো: আবুল কালাম আজাদ, সাবেক পিপি, জেলা আওয়ামীলীগ নেতা এ্যাড. খসরুজ্জামান দুলু, দৈনিক পুনরুত্থানের বার্তা সম্পাদক মো:মিজান-উর-রহমান, ময়না ইউনিয়নের আসন্ন নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী মো: আবুল খায়ের মিয়া প্রমুখ । 

Comments: