সোনারগাঁওয়কে আধুনিক উপজেলা হিসেবে গড়ে তোলা হবে .......জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ

সোনারগাঁওয়ে মত বিনিময় সভায় জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ বলেছেন, শিশুরাই আগামী দিনের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনারবাংলা বিনির্মাণের সৈনিক হিসেবে কাজ করবে। শিশুদের যোগ্য করে গড়ে তুলতে হলে তাদেরকে বেশি বেশি সময় দিতে হবে। শিশু সন্তানের সঙ্গে মুক্তিযুদ্ধ, ভাষা আন্দোলন, ইতিহাস ঐতিহ্য নিয়ে গল্প করতে হবে। তাদের সঙ্গে নিয়ে খাবার খেতে হবে। তাহলে শিশুদের বিপথে যাওয়ার সুযোগ থাকবে না। এ থেকে শিক্ষা নিয়ে এ শিশুরা গড়ে উঠবে। শিশুদের যোগ্য করে গড়ে তুলতে না পারলে ভিশন-২০৪১ বাস্তবায়ন সম্ভব হবে না। বৃহস্পতিবার দুপুরে সোনারগাঁও উপজেলা পরিষদে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।তিনি আরও বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের জন্যই আমরা এ দেশ পেয়েছি। মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান সবার উপরে। তাদেরকে সম্মান দিতে হবে। সোনারগাঁও একটি পর্যটন নগরীর স্থান। সোনারগাঁওকে আলাদা গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে চাই। এ সোনারগাঁওকে সারা বিশ্বে পরিচিতি করতে পর্যটন নিয়ে কাজ করে নারায়ণগঞ্জের মধ্যে সোনারগাঁওকে মডেল উপজেলা হিসেবে গড়ে তোলা হবে।নারায়ণগঞ্জকে নিয়ে আমরা স্বপ্ন দেখি। আমাদের স্বপ্ন অনেক। নারায়ণগঞ্জ এমন একটি স্থান। এটি রাজনৈতিক, সামাজিক ও অর্থনৈতিকভাবে গুরুত্ব বহন করে। একটি সুন্দর নারায়ণগঞ্জ উপহার দেওয়ার জন্য সকলকে নিয়ে কাজ করতে চাই। নারায়ণগঞ্জে বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও ভিশন-২০৪১নিয়ে কাজ করে যাবো। এ কাজের মধ্যে সবকিছুতেই ডিজিটালের ছোঁয়া থাকবে।সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আতিকুল ইসলামের সভাপতিতে বক্তব্য রাখেন সোনারগাঁও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান বাবুল ওমর বাবু, সোনারগাঁও উপজেলা সহকারী কমিশার (ভূমি) গোলাম মোস্তফা মুন্না, বারদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জহিরুল হক, সনমান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান জিন্নাহ, শম্ভুপুরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রব, জামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হামীম শিকদার শিপলু , সোনারগাঁও থানার ওসি তদন্ত তবিদুর রহমান প্রমুখ।এসময় সোনারগাঁও উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকতা, স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।মতবিনিময় সভায় শেষে সকল ইউনিয়ন পরিষদে কম্পিউটার, দুস্থ ও অসহায় মহিলাদের সেলাই মেশিন ও বিভিন্ন ক্রীড়া সংগঠনকে ক্রীড়া সামগ্রী বিতরণ করেন।পরে ডিসি সোনারগাঁও উপজেলা ভূমি কার্যালয়, মেঘনা শিল্প নগরী এলাকায় ডিসি গার্ডেন ও অসহায় ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মধ্যে নির্মাণ করা পাকাঘর পরিদর্শন করেন।

 

Comments: