ভাটারায় পুলিশের সোর্স পরিচয় দানকারী কে? এই মিজান।

রাজধানীর ভাটারা থানা এলাকায় পুলিশের সোর্স পরিচয়ে মিজান নামে এক ব্যক্তি বিভিন্ন স্থানে চাঁদা বাজি করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। চাঁদা না পেলে বিভিন্ন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের নানা কৌশলে পুলিশ দিয়ে হয়রানি করে এই মিজান। সাপ্তাহিক উৎকোষ সুবিধায় মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে তার গভীর সখ্যতা রয়েছে বলে অনেকে মৌখিক অভিযোগ করেন। মাঝে মধ্যে ভাটারা থানার কয়েক জন পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে বিভিন্ন স্থানে তার বিচরণ লক্ষণীয়। পুলিশের তথ্যদাতা হয়ে তাদের সঙ্গে অবাধ ঘুরাফেরার ফলে অনেকেই তাকে সোর্স হিসেবে চেনে বলে এক চা দোকানী বলেন। বারিধারা জে ব্লক ও ১২ বিঘা এলাকার বিভিন্ন ভ্রম্যমান মাদক বিক্রেতাদের নিকট থেকে উৎকোচ গ্রহনের সময় প্রায় টুকিটাকি ঝুটঝামেলা হয়ে থাকে।গত ১২-১-২১ ইং সন্ধ্যার সময় ১২ বিঘা এলাকায় চাঁদা আনতে গিয়ে লাঞ্ছিত হতে হয়েছে তাকে। এভাবে ভাটারা এলাকা জুড়ে তার চাঁদা দৌরাত্ম্যের অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে। সাধারণত অপরাধী সনাক্ত ও তদন্ত সংশ্লিষ্ট কাজে সোর্সের সহযোগিতা নিয়ে দু একটি ঘটনায় সঠিক তদন্তকার্য সম্পন্ন করায় সোর্সদের প্রতি একটু বেশি তথ্য নির্ভর হয়ে পড়ে পুলিশ,আর এভাবেই সোর্স পুলিশের সঙ্গে তাদের সম্পর্ক বৃদ্ধি পায় সোর্সরাও তাদের স্বার্থসিদ্ধি হাসিলের জন্য নানা বিধ অপরাধে জড়িয়ে পড়ে। সাম্প্রতিক কয়েক বছরে সোর্সদের অপকর্মের জন্য বেশকিছু পুলিশ সদস্যকে শাস্তির সম্মুখীন হতে হয়। পুলিশ সদরদপ্তর থেকে ও এ ধরনের কথিত সোর্সদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা রয়েছে। সেই থেকে পুলিশ সোর্সদের সম্পর্কে দূরত্ব তৈরি হয় এবং দাগি সোর্সরা গা ডাকা দিয়েছে। কিন্তু ভাটারা থানা এলাকায় পুলিশের সোর্স পরিচয় দানকারী কথিত সোর্সের লাগামহীন চাঁদা দৌরাত্ম্যে জনজীবন অতিষ্ঠ হতে চলেছে।

 

 

Comments: