LATEST
বৃহস্পতিবার করোনার টিকা প্রয়োগ দেয়া হবে রাজধানীর ৫ হাসপাতালে আজ করোনার টিকা প্রয়োগ দেয়া হবে রাজধানীর ৫ হাসপাতালে শাহজালাল বিমানবন্দরে স্বর্ণসহ আটক ১ মেয়র কাদের মির্জাকে নাগরিক সংবর্ধনা চসিক নির্বাচন: বিপুল ভোটে এগিয়ে আওয়ামী লীগ প্রার্থী শৈলকুপায় সেনাবাহিনীতে চাকুরী দেওয়ার নাম করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে প্রতারক চক্র! ঝিনাইদহে বাল্যবিবাহ ও আত্মহত্যা প্রতিরোধ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত ‘‘পুলিশকে সহায়তা করুন, পুলিশের সেবা গ্রহন করুন”শ্লোগানে ঝিনাইদহে ট্রাফিক সচেতনতামুলক কর্মসূচি অনুষ্ঠিত সাংবাদিক তোতার কাব্যগ্রন্থ ‘দিবানিশি স্বপ্নের খেলা’ প্রকাশ করোনায় জাবির সাবেক কর্মকর্তার মৃত্যু, স্বামীর মৃত্যু শোকে স্ত্রী দুই সপ্তাহ ধরে আইসিইউ’তে!

ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহের মধ্যে এইচএসসির ফল

আগামী ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যেই ২০২০ সালের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশের চেষ্টা চলছে বলে জানা গেছে। আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব কমিটির সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমেদ জানান, ‘শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন— ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহের মধ্যে ফলাফল দেওয়া হবে। সে লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি। আমরা শিক্ষামন্ত্রীর দেওয়া সময় ঠিক রাখার চেষ্টা করছি। জাতীয় পরামর্শক কমিটি সে লক্ষ্যে কাজ করছে। ডিসেম্বরের শেষ দিনে হলেও ফল প্রকাশ করার চেষ্টা চলছে।’

এর আগে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে এইচএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে। জেএসসি-জেডিসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে এইচএসসি পরীক্ষার ফল তৈরি করা হবে।’করোনাভাইরাসের কারণে গত ১৭ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। দফায় দফায় তা বাড়িয়ে আগামী ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। করোনার কারণে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী, এবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী, জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা এবং সর্বশেষ এইচএসসি পরীক্ষা বাতিল করে দুই মন্ত্রণালয়। এরপর ঘোষণা দেওয়া হয়, জেএসসি ও জেডিসি এবং এসএসসি এ দুটি পাবলিক পরীক্ষার ফলাফলের ওপর ভিত্তিকে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ফলাফল তৈরি করা হবে। থাকবে নম্বরপত্র যাতে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে শিক্ষার্থীদের কোনও ক্ষতি না হয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছর করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে এইচএসসি-সমমান পরীক্ষা বাতিল করা হয়। শিক্ষার্থীদের ফলাফল তৈরির সুপারিশের জন্য একটি জাতীয় পরামর্শক কমিটি গঠন করে মন্ত্রণালয়। কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের বিষয়ভিত্তিক নম্বর নির্ধারণ করা হবে।

 

Comments: