সরকার জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন, পদত্যাগের সাহস নেই : আ স ম রব

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) সভাপতি  আ স ম আবদুর রব বলেছেন, নির্বাচনবিহীন এবং জবাবদিহিতাহীন সরকার উন্নয়নের নামে প্রকৃতপক্ষে দেশকে ধ্বংসের কিনারে নিয়ে গেছে। পাঁচ থেকে ছয় কোটি মানুষ দারিদ্র্য সীমার নিচে অবস্থান করছে। নির্মম এবং কঠিন পরিস্থিতিতে জনজীবন অসহনীয় হয়ে উঠেছে। উচ্চ প্রবৃদ্ধির ডামাডোলে অসমতা বা বৈষম্য বিপজ্জনক পর্যায়ে উপনীত হয়েছে। 

তিনি বলেন, বেকার, কর্মসংস্থানহীন বা দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে দারিদ্রাবস্থা থেকে বের করে আনার যথাযথ পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হচ্ছে। সরকার আইনের শাসন ও ন্যায় বিচার উপেক্ষা করে মূলত অপশাসনকে কেন্দ্র করে রাষ্ট্র পরিচালনা করতে গিয়ে জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। তবু সরকার পদত্যাগ করে সংকট মোকাবিলায় কোন পদক্ষেপ নিতে সাহস করছে না বরং ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য ষড়যন্ত্রে নিমজ্জিত রয়েছে।
সুতরাং গণ-আন্দোলন এবং গণ-বিস্ফোরণের মাধ্যমে সরকারের পতনকে অনিবার্য করে তুলতে হবে এবং গণমুখী রাজনৈতিক মডেল গড়ে তোলার প্রক্রিয়া শুরু করতে হবে।

বৃহস্পতিবার খুলনা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে জেলা জেএসডি কাউন্সিলে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে আ স ম রব এসব কথা বলেন।  

কাউন্সিলের বিশেষ অতিথি জেএসডির কার্যকরী সাধারণ সম্পাদক শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন বলেন, দেশের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক পরিস্থিতি ক্রমাগত নাজুক হয়ে পড়ছে। কর্তৃত্ববাদী সরকার রাষ্ট্রের সকল প্রতিষ্ঠানকে ভঙ্গুর করে ফেলছে। এ সরকারের দুঃশাসনের বিরুদ্ধে নতুন লড়াকু গণশক্তির উত্থান ঘটছে। এই গণশক্তিই গোটা শাসন ব্যবস্থা পরিবর্তন করে অংশীদারিত্বের গণতন্ত্র প্রবর্তনে নিয়ামক শক্তি হয়ে উঠবে।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট সৈয়দ বেলায়েত হোসেন বেলাল বলেন, কর্তৃতবাদী শাসক ও শাসন ব্যবস্থা বদলের লক্ষ্যে গণজাগরণ, গণ আন্দোলন এবং জনবিস্ফোরণ ঘটাতে হবে।

খুলনা মহানগর জেএসডি সভাপতি লোকমান হাকিমের সভাপতিত্বে এবং স ম রেজাউল করিমের সঞ্চালনায় কাউন্সিলে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাংগঠনিক সম্পাদক মোশাররফ হোসেন ।

কাউন্সিলর আরো বক্তব্য রাখেন স্থানীয় জেএসডি নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ শেখ আব্দুল খালেক, লোকমান হোসেন তালুকদার, মনিরুল ইসলাম, আবু সিনা ইবনে ওয়াহিদ মিকি, এ এম রাশিদুল আহসান বাবলু, জি এম সাইমুল ইসলাম , বাংলাদেশ জাসদের সভাপতি রফিকুল হক খোকন, ভাসানী অনুসারী পরিষদের সভাপতি শেখ আব্দুল হালিম প্রমুখ।

খুলনা জেলা এবং মহানগর কমিটি গঠন।

কাউন্সিলের দ্বিতীয় অধিবেশনে লোকমান হাকিমকে সভাপতি এ এম রাশিদুল আহসান বাবলুকে  সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করে ৫১সদস্য বিশিষ্ট খুলনা মহানগর কমিটি গঠন করা।
বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ শেখ আব্দুল খালেককে সভাপতি, স ম রেজাউল করিমকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করে ৫১ সদস্য বিশিষ্ট খুলনা জেলা কমিটি গঠন করা হয়।

 

Comments: