promila ad

পুরুষ নির্যাতন দমন আইনের দাবিতে আন্দোলনের ডাক ‘আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস পালিত'

‘আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস’ উপলক্ষে রাজধানীতে কর্মসূচি পালন করেছে বাংলাদেশ পুরুষ অধিকার ফাউন্ডেশন। বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে 'পুরুষ নির্যাতন দমন আইনের দাবিতে আন্দোলনের আহবান জানান সংগঠনটির কেন্দ্রীয় নেতা সাংবাদিক নজরুল ইসলাম দয়া। বক্তৃতায় তিনি বলেন, যৌতুক বা নারী নির্যাতন মামলা অধিকাংশই পুরুষ নির্যাতনের অংশ। আমরা নারী নির্যাতন আইনের বিরুদ্ধে নই। তবে সংশোধন দাবি করি। উভয় সম্মতিতে যৌন সম্পর্কের পর ধর্ষণ মামলা হবে কেন? এখানে পুরুষও ধর্ষণের শিকার। কিন্তু পুরুষের পক্ষে আইন নেই, মন্ত্রণালয় নেই। ইভটিজিং কি শুধু পুরুষ করে? নারীরা ইভটিজিং করে না? প্রশ্ন রেখে পুরুষ অধিকার নেতা নজরুল ইসলাম দয়া বলেন, নওগাঁর মহাদেবপুর থানায় স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রী ধর্ষণ মামলাই প্রমাণ করে পুরুষ নির্যাতন হচ্ছে কিনা! প্রেম করে পালিয়ে বিয়ে করার পর অপহরণ মামলা হয়। আইনের শাস্তি শুধু পুরুষের হয়, নারীদের শাস্তি হয়না। কিছু নারী কর্তৃক মিথ্যা মামলা, মানসিক নির্যাতন সহ বিভিন্নভাবে পুরুষ নির্যাতন হচ্ছে বলেও দাবি করেন বক্তারা। 'পুরুষদের সুরক্ষায় আইন, পুরুষবিষয়ক মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠাসহ বিভিন্ন দাবিতে রাজধানীতে মানববন্ধন ও শোভাযাত্রা করে পুরুষ অধিকার ফাউন্ডেশন। সকাল ১০টার দিকে বাংলাদেশ মেনস রাইটস ফাউন্ডেশন প্রথমে শোভাযাত্রা বের করে। শোভাযাত্রাটি জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে শুরু হয়। হাইকোর্ট মোড় ঘুরে তা আবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এসে শেষ হয়। পরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে তারা মানববন্ধন করে। কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে বক্তারা দাবি করেন, এ দেশে নারীদের জন্য আইনি সুরক্ষার ব্যবস্থা থাকলেও পুরুষদের জন্য তা নেই। পুরুষেরা ঘরে-বাইরে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন। তাঁরা শিক্ষা, স্বাস্থ্য, চিকিৎসা, চাকরিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বৈষম্যের শিকার। বক্তারা লিঙ্গবৈষম্যহীন নির্যাতন দমন আইনের দাবি করেন। একই সঙ্গে তাঁরা বলেন, পুরুষের জন্য কোনো আইন ও মন্ত্রণালয় না থাকার তাঁরা বৈষম্যগুলো তুলে ধরতে ব্যর্থ হন। তাই তাঁরা পুরুষ নির্যাতন আইন, পুরুষবিষয়ক মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন দাবি জানান। মেনস রাইটস ফাউন্ডেশনের কর্মসূচিতে সংগঠনটির সভাপতি শেখ খায়রুল, মহাসচিব ফারুক শাজেদ, ঢাকা মহানগরের নেতা মাজেদ ইবনে আজাদ, লিটন গাজী, সাংবাদিক আয়াতুল্লাহ, আইন উপদেষ্টা তানভীর হায়দার বক্তব্য দেন। বিশ্বের বেশ কিছু দেশে প্রতিবছর ১৯ নভেম্বর ‘আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস’ হিসেবে পালন করা হয়।

 

Comments: