বিয়ের ৮ বছর পর স্ত্রী জানলেন, স্বামী আগে নারী ছিলেন!

আট বছর আগে বিয়ে হয়েছিল। কিন্তু দাম্পত্য জীবনে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতেই চাইতেন না স্বামী। বরং ‘বিকৃত’ যৌনতাই তাকে আকৃষ্ট করত। স্বামীর এমন কাণ্ড দেখে আগেই সন্দেহ হয়েছিল ওই নারীর।

 

শেষে স্বামীই জানিয়ে দিলেন, তিনি আগে নারী ছিলেন এবং আর লিঙ্গ পরিবর্তন করে নারী থেকে পুরুষ হয়েছেন। বিয়ের এতগুলো দিন কাটানোর পর স্বামীর এই স্বীকারোক্তিতে রীতিমতো আঁতকে উঠেছেন ওই নারী। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের গুজরাট রাজ্যের ভাদোদরায়। শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, লিঙ্গ পরিবর্তন করে নারী থেকে পুরুষ হওয়ার বিষয়ে স্বীকারোক্তির পর স্বামীর বিরুদ্ধে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন ৪০ বছর বয়সী ওই নারী। পুলিশের কাছে দেওয়া অভিযোগে স্বামীর পরিবারকেও অভিযুক্ত করেছেন তিনি।

 

ভুক্তভোগী ওই নারীর অভিযোগ, ২০১৪ সালে তাদের বিয়ে হয়েছিল। বিয়ের সময় লিঙ্গ পরিবর্তনের কথা গোপন করেন তার স্বামী। গত বুধবার গোত্রী থানায় স্বামী বিরাজ বর্ধনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন ওই নারী। সেখানে স্বামীর বিরুদ্ধে বিকৃত যৌনতা ও প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। স্বামীর পরিবারের সদস্যদেরও নাম রয়েছে এফআইআরে।

 

পুলিশের সূত্র দিয়ে বলা হয়েছে, ৯  বছর আগে ‘ম্যাট্রিমনিয়াল সাইট’ (যেখানে পাত্র-পাত্রীর বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়) মাধ্যমে বিরাজ বর্ধনের সঙ্গে পরিচয় হয় ওই নারীর। অবশ্য ওই নারীর আগে এক বিয়ে হয়েছিল এবং ২০১১ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় তার প্রথম স্বামীর। সেই পরিবারে তার ১৪ বছরের কন্যা সন্তান রয়েছে। প্রথম স্বামীর মৃত্যুর পর বিরাজের সঙ্গে ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে বিয়ে হয় ওই নারীর। বিয়ের পর মধুচন্দ্রিমা করতে তারা কাশ্মিরে গিয়েছিলেন।

 

ওই নারীর অভিযোগ, বিয়ের বহু দিন পরও তার স্বামী শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতে চাইতেন না। নানা অজুহাত দিতেন। এক বার জোর করায় নারীকে তার স্বামী জানান, কয়েক বছর আগে রাশিয়ায় একটি দুর্ঘটনায় তিনি আহত হন। তখন তার অস্ত্রোপচার হয়। সে কারণেই শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনে তিনি অক্ষম।

 

নারীকে তার স্বামী আরও জানান, একটা ছোট অস্ত্রোপচারের পর তিনি ঠিক হয়ে যাবেন। ২০২০ সালের জানুয়ারি মাসে নারীকে তার স্বামী জানান, ওজন কমানোর জন্য অস্ত্রোপচার করাতে কলকাতা গিয়েছিলেন।

 

পরে স্ত্রীকে অভিযুক্ত ব্যক্তি বলেন, তিনি আদতে লিঙ্গ পরিবর্তন করেছেন। তার সঙ্গে ‘বিকৃত’ যৌনতায় লিপ্ত হতেন বলেও স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন ওই নারী। এমনকি, এ কথা কাউকে জানালে পরিণতি ভয়ঙ্কর হতে পারে বলে হুমকিও দিতেন স্বামী।

 

পুলিশ জানিয়েছে, লিঙ্গ পরিবর্তনের আগে বিরাজের নাম ছিল বিজয়িতা। গোত্রী থানার ইনস্পেক্টর এমকে গুর্জর জানিয়েছেন, অভিযুক্ত এই ব্যক্তি দিল্লির বাসিন্দা। তাকে ভাদোদরায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তবে এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে কি না, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

 

৪০ বছর বয়সী ওই নারীর অভিযোগ, বিরাজ বা বিজয়িতার বাড়ির লোকজন সবটাই জানতেন। তিনি কোন অস্ত্রোপচারের জন্য কলকাতায় যাচ্ছেন, সেটিও তারা জানতেন। কিন্তু, তার কাছ থেকে সব তথ্য গোপন রেখেছিলেন তারা।

 

পুনরুত্থান /টিএম

Comments: