৮৪ রানের লক্ষ্য দিয়ে থামল টাইগাররা

যে স্বপ্ন দেখিয়ে চা-বিরতিতে গিয়েছিলেন সাকিব আল হাসান-নুরুল হাসান সোহান, সেটা পূর্ণতা পায়নি বিরতির পর। আর ২২ রান যোগ করে সাকিব আউট হলে ভাঙে দুজনের জুটি। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ থামে ২৪৫ রানে।

 

জিততে হলে চতুর্থ ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে করতে হবে ৮৪ রান। চা-বিরতির পর সপ্তম ওভারে কেমার রোচের বলে আউট হন সাকিব। রোচের ফুল লেংথের বলটা কাভার ফিল্ডারের ওপর দিয়ে মারতে চেয়েছিলেন সাকিব। কিন্তু টাইমিংয়ের হেরফেরে সেটা জায়গা করে নেয় ক্রেগ ব্রাথওয়েটের হাতে। ৬৩ রানে থামে সাকিবের ইনিংস। উইকেটের পর রোচের উচ্ছ্বাসই বলে দিচ্ছিল, উইকেটটা খুব করে চাচ্ছিলেন তাঁরা।

 

সাকিবের আউটে ভাঙে বাংলাদেশকে ভালো একটা লিডের স্বপ্ন দেখানো ১২৩ রানের সাকিব-সোহান জুটি। দ্বিতীয় ইনিংসে ১০৯ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ইনিংস হারের শঙ্কায় ছিল বাংলাদেশ। দাঁড়িয়ে যাওয়া জুটিটা চাপ বাড়িয়েছে ক্যারিবীয়দের। সাকিবের বিদায়ে তাই ওয়েস্ট ইন্ডিজের অমন বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস। ৪ ওভার পর ড্রেসিংরুমের পথ ধরেন সোহান। এবারও বোলার রোচ। ওয়াইড বল তাড়া করতে গিয়ে উইকেটকিপার জশুয়া ডি সিলভার গ্লাভসবন্দি হন সোহান।

 

চা-বিরতির পর টেস্ট ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ফিফটি পূর্ণ করা সোহান থামেন ৬৪ রানে।  এরপর আর মাত্র ৭ রান যোগ করে শেষ বাংলাদেশের ইনিংস। ২৪.৫ ওভার বোলিং করে ৫৩ রানে ৫ উইকেট শিকার করেছেন রোচ। অথচ ফিটনেস ইস্যুতে এই টেস্টেই খেলার কথা ছিল না তাঁর। টেস্ট ক্যারিয়ারে এ নিয়ে ১০ বার ইনিংসে ৫ উইকেট পেলেন রোচ।

Comments: