ফরিদপুর জেলা আ’লীগের সভাপতি শামীম হক ও সাধারণ সম্পাদক শাহ মোঃ ইশতিয়াক আরিফ

ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের বিলুপ্ত কমিটির সহ-সভাপতি শামীম হক সভাপতি হিসেবে র্নির্বাচিত হয়েছেন।
পাশাপাশি শাহ্ মোঃ ইশতিয়াক আরিফকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে।

(১২ মে) বৃহস্পতিবার শহরের রাজেন্দ্র কলেজের শহর ক্যাম্পাস মাঠে জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন শেষে দ্বিতীয় অধিবেশন সম্মেলনের সভাপতি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করেন।
কমিটির অন্যান্য পদ কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সঙ্গে আলোচনা করে পূরণ করবেন।

সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনের পর আগের কমিটি বিলুপ্ত করে দ্বিতীয় অধিবেশন শুরু হয়। এর আগে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদ-প্রত্যাশীদের নিয়ে দ্বিতীয় অধিবেশনের সভাপতি কাজী জাফরউল্লাহ ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি সম্মেলনে ১০ জন সভাপতি ও ২১ জন সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থীদের নিয়ে আলাদাভাবে মতবিনিময় করেন। প্রার্থীরা কোনো সিদ্ধান্ত না দেওয়ায় কেন্দ্রীয় নেতারা
এ সময় দলের সভাপতি শেখ হাসিনা ও সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এর সঙ্গে মুঠোফোনে পরামর্শ করেন। এরপরে ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের নাম ঘোষণা করেন।

সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডভোকেট সুবল চন্দ্র সাহা সভাপতিত্বে, এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ মাসুদ সঞ্চালনায়
আয়োজিত সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত হয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি।

সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নে সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। দেশের উন্নয়ন অব্যাহত থাকলে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের বিজয় সুনিশ্চিত।
তিনি বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের যে অগ্রযাত্রা শুরু হয়েছে, কোনো অপশক্তি তা বাধাগ্রস্ত করতে পারবে না। এ জন্য আওয়ামী লীগের সর্বস্তরের নেতা কর্মীদের বিভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। জনগণের নিকট আওয়ামী লীগ সরকারের সাফল্যের বার্তা পৌঁছে দিতে হবে।
আরো বলেন, বিএনপি মহাসচিবের চোখ অন্ধ হয়ে গেছে। তিনি দেশের উন্নয়ন দেখতে পারেন না।

সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ।

সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি।

সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের কৃষি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী ডঃ আব্দুর রাজ্জাক এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য লেফটেন্যান্ট কর্নেল (অব.) ফারুক খান এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ. ফ. ম. বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক বি. এম. মোজাম্মেল, সাংগঠনিক সম্পাদক এস.এম. কামাল, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ডক্টর আবদুস সোবহান গোলাপ এমপি, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মোঃ সিদ্দিকুর রহমান, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, কার্যনির্বাহী সদস্য আনোয়ার হোসেন, কার্যনির্বাহী সদস্য শাহাবুদ্দিন ফরাজী, কার্যনির্বাহী সদস্য ইকবাল হোসেন অপু এমপি, সৈয়দ আব্দুল আওয়াল শামীম, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম এমপি।
এ সময় সম্মেলনে কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীরা, বিলুপ্ত জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দসহ জেলার নয়টি উপজেলার আওয়ামী লীগের অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Comments: