ঝিনাইদহে অন্তকোন্দলে যুবককে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় মেহেদি হাসান স্বপন (২৮) নামে এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। শুক্রবার (২১ জানুযারি) দিবাগত রাতে উপজেলার সারুটিয়া ইউনিয়ের তালতলা বাজারে তাকে পিটিয়ে জখম করা হয়। পরে শনিবার ভোরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। নিহত মেহেদি হাসান সারুটিয়া ইউনিয়নের তালতলা গ্রামের দবিবুর রহমানের ছেলে। তিনি একজন ইলেক্ট্রিক মিস্ত্রি।

 

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে তার ফোনে কল দিয়ে পার্শ্ববর্তী বাজারে ডাকা হয়। ফোন পেয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে বাজারের কাছে তালতলা ব্রিজের ওপর গেলে কয়েকজন লোক তাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে ফেলে রেখে যায়। এরপর তাকে উদ্ধার করে প্রথমে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল ও পরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

 

ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান মামুন জানান, নিহত স্বপন শুধু তার সামাজিক দলের লোকই না বরং একজন ভালো কর্মী। এই হত্যাকাণ্ডকে ভিন্নখাতে নিয়ে ফায়দা লুটতে প্রতিপক্ষ অপপ্রচার চালাচ্ছে।

 

শৈলকুপা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ইউনিয়নের বিজয়ী চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান মামুন ও পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী জুলফিকার আলী কায়সার টিপু দু’জনই স্বপনকে তাদের সমর্থক বলে দাবি করছে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

 

 

পুনরুত্থান/আরিফা/সাকিব/দয়া

Comments: