কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে সংঘর্ষে নারীসহ আহত ১৫

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে ব্যাংক কর্মকর্তা সহ দু পক্ষের ১৫ জন আহত হয়েছেন। (২১শ জানুয়ারি) শুক্রবার সকাল ৮ টার দিকে চাঁদপুর ইউনিয়নের গড়েরবাড়ি কাঞ্চনপুর গ্রামে বাড়ি নির্মাণের কাজ করতে গেলে প্রতিবেশীর হামলায় নারী সহ উভয় পক্ষের ১৫ জন আহত হয়।

 

আহতরা হলেন গড়েরবাড়ি কাঞ্চনপুরের ব্যাংক কর্মকর্তা আ. রশিদের ছেলে সোহেল রানা (৩৫), তরিকুল ইসলাম (৩৫),  রফিকুল ইসলাম, আতাহার আলী (৬০), মহির হোসেন (৪০), শহীদুল ইসলাম (৬০), নাজিম মিয়া (৪০), অন্তর বিশ্বাস (২২), শাহাদাত বিশ্বাস , মোছাঃ আমেনা বেগম (৭০), মোছাঃ আম্বিয়া খাতুন (৫০)। এবং অপরপক্ষের  আসাদুল ইসলাম (৪৫),  রবিন বিশ্বাস (২৬) ও আরিফুল ইসলাম (১৮)।

 

জানা যায়, ইসলামি ব্যাংকে কর্মরত সোহেল রানা তার ক্রয়কৃত সম্পত্তিতে শুক্রবার সকালে বাড়ি নির্মাণের কাজ করতে গেলে প্রতিবেশী সিরাজ বিশ্বাস তার লোকজন নিয়ে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে  হামলা চালালে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে নারী সহ  দু পক্ষের ১৫ জন আহত হয়েছে।  আহতরা বর্তমানে কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

 

এ বিষয়ে চাঁদপুর ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদুজ্জমান তুষার  জানান, সোহেল রানা জমি কেনার পর থেকেই প্রতিবেশী সিরাজ বিশ্বাস বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেন জমির দখল নিয়ে।

 

এ বিষয় নিয়ে কুমারখালী থানায় শালিসি বৈঠকে সোহেল রানার পক্ষে সমস্ত প্রমাণাদি থাকার কারনে তার পক্ষে রায় দেয়। যেকারণে ব্যাংক কর্মকর্তা তার জমির উপর শুক্রবার সকালে বাড়ি নির্মাণের কাজ করতে গেলে সিরাজ বিশ্বাস তার লোকজন নিয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। হামলায় নারী সহ ব্যাংক কর্মকর্তার পরিবারের একাধিক ব্যক্তি ও সিরাজ বিশ্বাসের কয়েকজন আহত হয়েছেন।

 

এ বিষয়ে সিরাজ বিশ্বাস তার বিরুদ্ধে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এবং তিনি বলেন পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে আমাদের লোকজনের উপর হামলা করেছে। এ বিষয়ে কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুজ্জামান তালুকদার জানান,সংঘর্ষে দুপক্ষের অনেকেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীনরয়েছে। অভিযোগ পেয়েছি। খোঁজ খবর নিয়ে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

 

পুনরুত্থান/আরিফা/সাকিব/দয়া

Comments: