এক সপ্তাহে ঢাবির ২২ শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গত এক সপ্তাহে বিভিন্ন বিভাগের ২২ শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিক্যাল সেন্টারের নমুনা পরীক্ষায় এই তথ্য জানা গেছে।

 

আজ বৃহস্পতিবার রাতে করোনা পরীক্ষা ল্যাবের দায়িত্বপ্রাপ্ত অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. মিজানুর রহমান কালের কণ্ঠকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ‘প্রতিনিয়ত শিক্ষার্থীদের আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। তবে করোনার এই ঢেউয়ে ক্ষতির সম্ভাবনা তুলনামূলক কম। এই অবস্থায় শিক্ষর্থীদের কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। একইসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে বহিরাগত চলাচল সীমিত করা যেতে পারে। ’

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের করোনা ল্যাব থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত গত এক সপ্তাহে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিক্যাল সেন্টারে ৩৬ শিক্ষার্থী নমুনা দিয়েছেন। এর মধ্যে ২২ শিক্ষার্থী আক্রান্ত হয়েছেন। সর্বশেষ ২০ জানুয়ারি ১৯ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১৩ শিক্ষার্থী আক্রান্ত হয়েছেন। ১৯ জানুয়ারি ২১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৯ শিক্ষার্থী আক্রান্ত হয়েছেন। প্রতিনিয়ত আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। তবে সংক্রমণ পরিস্থিতি তুলনামূলক বাড়লেও পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। শিক্ষার্থীদের নানা বিষয় চিন্তা করেই এখনই বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করতে চায় না প্রশাসন। আবাসিক হল বন্ধ না করে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মানার দিকে বেশি জোর দিচ্ছেন তারা।

 

সার্বিক বিষয়ে উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান কালের কণ্ঠকে বলেন, শনাক্তের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। পরিস্থিতি সতর্কতার সঙ্গে মোকাবেলা করতে হবে। বন্ধ করে দেওয়া বা কার্যক্রম সীমিত করে দেওয়া কোনো সমাধান নয়। বন্ধ করে দিয়ে শিক্ষার্থীদের বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া কোনো সমাধান না। বরং বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো বড় পরিবারে রেখে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করছি। ক্যাম্পাসে রেখেই কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে করোনা সংক্রমণের হার নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছি। এখনই এ ছাড়া ভিন্ন কিছু ভাবছি না। তবে শিক্ষার্থীরা আক্রান্ত হলেও মনোবল হারাচ্ছে না। এটা অন্যতম ইতিবাচক দিক।

 

 

পুনরুত্থান/আরিফা/সাকিব/দয়া

Comments: