LATEST
আজ সংসদ অধিবেশনে ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি ঝিনাইদহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের পরিদর্শন বাংলোতে কেনা কাটায় কেলেংকারিসহ নানা দুর্নীতির তদন্ত সুষ্ঠ হবে তো? শীতার্ত বৃদ্ধা মায়েদের শীতবস্ত্র দিলেন যুবলীগ নেতা লুৎফর আত্রাইয়ে আম গাছে উঁকি মারছে মুকুল মাগুরায় উপজেলা পরিষদ এসোসিয়েশনের মত বিনিময় সভা পুঁজি বাঁচাতে কম মূল্যে মুরগী বিক্রি করছে খুলনাঞ্চলের খামারীরা মাগুরায় মুজিবর্ষে ১১৫ ভ‚মিহীন পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর মাগুরার পৌর মেয়রখুরশীদ হায়দার টুটুল শৈলকুপা পৌর নির্বাচনে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মাঝে উত্তেজনা, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর গাড়ি ভাংচুর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১৯ প্রদান আজ

মন্দা কাটিয়ে আশা আলো দেখাচ্ছে পুঁজিবাজার

পুঁজিবাজারে ২০১৯ সালটা ভালো যায়নি। এ বছর বাজার চাঙ্গা করতে ব্যাংকের বিনিয়োগ বৃদ্ধি, মূলধন, ভালো কম্পানির আইপিও ও প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়। কিন্তু তাতে বাদ সাধে মার্চে ছড়িয়ে পড়া করোনা মহামারি। ওই সময় বাজারে টালমাটাল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। আশার বিষয়, সেই মন্দাবস্থা থেকে পুঁজিবাজারের উত্তরণ ঘটছে। সুশাসন প্রতিষ্ঠায় নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কড়া ভূমিকায় বিনিয়োগকারীর আস্থা ফিরছে। মূলধন হারানো বিনিয়োগকারীরা আস্তে আস্তে আবারও পুঁজিবাজারে ফিরছে। দুর্বল কম্পানিকে ফিরিয়ে দিয়ে ভালো কম্পানির আইপিও দিতে জোর চেষ্টা চালাচ্ছে কমিশন।মন্দাবস্থায় লেনদেন তলানিতে নামা ব্রোকারেজ হাউসগুলোতে এখন বিনিয়োগকারীর পদচারণ বেড়েছে। সশরীরে থাকার চেয়ে মোবাইল কিংবা অনলাইন প্ল্যাটফর্মে লেনদেন বেড়েছে। গত বৃহস্পতিবার মতিঝিলের কয়েকটি ব্রোকারেজ হাউস ঘুরে দেখা গেছে বিনিয়োগকারীর উপস্থিতি কম। কিন্তু অনলাইনেই শেয়ার কেনাবেচা করছে। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ক্রমাগত বাড়লেও পিছিয়েছে পুঁজিবাজার। নানা কারণে পুঁজিবাজারে আস্থাহীনতা তৈরি হয়। নিয়ন্ত্রক সংস্থায় নতুন চেয়ারম্যান ও কমিশনাররা দায়িত্ব নেওয়ার পর সংস্কার ও সুশাসন প্রতিষ্ঠায় বড় উদ্যোগ নেওয়ায় পুঁজিবাজারে আস্থা ফিরছে।করোনা মহামারির মধ্যে মে মাসে নিয়ন্ত্রক সংস্থার চেয়ারম্যান এম খায়রুল হোসেনের মেয়াদ শেষ হয়। তিনি দীর্ঘ ৯ বছর দায়িত্ব পালন করেন। তবে নিয়ম ভেঙে দুই দফায় নিয়োগ, দুর্বল আইপিও ও অনিয়মের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান না নেওয়ায় পুঁজিবাজারে আস্থাহীনতা দেখা দেয়। বিনিয়োগকারীরা তাঁর পদত্যাগ চেয়ে আন্দোলনও করে।একে একে বিদায় নেন আরো তিন কমিশনার। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় অনুষদের ডিন ড. শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামকে নিয়ন্ত্রক সংস্থার চেয়ারম্যান নিয়োগ দিয়ে কমিশন পুনর্গঠন করা হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুজন অধ্যাপক ও একজন সচিব কমিশনের দায়িত্ব পান।পুঁজিবাজার পরিচালনায় দায়িত্ব নেওয়ার পর নতুন কমিশন সুশাসন ফেরাতে আইন সংস্কার ও অনিয়মের বিরুদ্ধে কড়া অবস্থান নেয়। আইনের ব্যত্যয় করায় তালিকাভুক্ত কম্পানির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়ে জরিমানা করতে থাকে। নতুন কমিশন অনিয়মের কারণে ৪২ কোটি টাকার বেশি জরিমানা করেছে। দুর্বল ও বছরের পর বছর লোকসানে থাকা কম্পানিতে স্বচ্ছতা আনতে প্রশাসক বসানো ও ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ পরিবর্তন করা হবে—এমন নির্দেশনাও জারি করে।নিয়ন্ত্রক সংস্থার চেয়ারম্যান ড. শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, ‘দায়িত্ব নেওয়ার পর বিনিয়োগকারীর আস্থা ও সুশাসন ফেরানোর ওপর জোর দেওয়া হয়। বিনিয়োগকারীর স্বার্থকে প্রাধ্যান্য দিয়ে পুঁজিবাজারের আইন-কানুন প্রণয়ন করা হচ্ছে। বিনিয়োগকারীর জমানো মূলধন কেউ যেন খেয়ে ফেলতে না পারে সে বিষয়ে জোর দেওয়া হচ্ছে। আস্তে আস্তে আস্থা বাড়ছে। সবার অংশগ্রহণে পুঁজিবাজারকে অনেক ওপরে নিয়ে যেতে চাই। সুশাসন প্রতিষ্ঠার আশ্বাস পাওয়ায় বিনিয়োগকারীরা ফিরছেন। একটি স্থিতিশীল পুঁজিবাজার গড়তে জোর দেওয়া হচ্ছে।করোনা মহামারিতে গত ২৬ মার্চ থেকে ৬৬ দিন বন্ধের পর গত ৩১ মে খুলেছে পুঁজিবাজার। এর আগে বড় পতন ঠেকাতে ফ্লোর প্রাইস বেঁধে দেয় কমিশন, বেঁধে দেওয়া ওই দামের নিচে কম্পানির শেয়ার দাম নামতে পারবে না—এমন বিধান করা হয়, যা এখনো চলমান। মহামারিতে লেনদেন শুরুর পর গতি না থাকলেও আগস্ট মাসে গতি পেয়েছে পুঁজিবাজার। তলানিতে থাকা লেনদেন এক হাজার কোটি টাকা ছড়িয়ে যায়। মূল্যসূচকে বড় উত্থান ঘটে।স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) তথ্যানুযায়ী, গত ৩১ মে থেকে ২০ আগস্ট পর্যন্ত পুঁজিবাজারে ৫৭ কার্যদিবস লেনদেনে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) মূল্যসূচক বেড়েছে ৭৩৩ পয়েন্ট, আর বাজার মূলধন বেড়েছে ৪৩ হাজার ৬১৩ কোটি ৫৭ লাখ টাকা। মূলত তালিকাভুক্ত কম্পানির শেয়ারের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় বাজার মূলধন বেড়েছে।মহামারিতে বন্ধের আগে মার্চের ১৭ দিনে পুঁজিবাজারে মূলধন কমেছিল ৩১ হাজার ২২৩ কোটি ৩৭ লাখ টাকা। আর মূল্যসূচক কমেছিল ৪২৬ পয়েন্ট। আগস্ট মাসের তথ্য পর্যালোচনায় দেখা গেছে, গত ১১ দিনে পুঁজিবাজারে মূলধন ফিরেছে ৩৪ হাজার ৫৬ কোটি ৯৮ লাখ টাকা, আর সূচক বেড়েছে ৫৭৯ পয়েন্ট।ইলেকট্রনিক শেয়ার সংরক্ষণকারী সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি অব বাংলাদেশের (সিডিবিএল) তথ্যানুযায়ী আগস্টের প্রথম ১১ দিনে ১৬ হাজারের বেশি নতুন বিনিয়োগকারী বাজারে এসেছেন।ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পরিচালক রকিবুর রহমান বলেন, ‘পুঁজিবাজারে এখন সুশাসন প্রতিষ্ঠা হচ্ছে। সার্কুলার ট্রেডিং ও আইপিওর ক্ষেত্রে যত অনিয়ম হয়েছে, সেগুলো ধরা হচ্ছে। কারসাজি গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। পরিচালকদের ২ শতাংশ ও সম্মিলিতভাবে ৩০ শতাংশ না থাকা কম্পানির উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের শেয়ার কিনতে বাধ্যবাধকতা আরোপ করা হয়েছে। ধামাধরা পরিচালকদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। সব মিলিয়ে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীর আস্থা ফিরছে। এতে করে নতুন নতুন বিনিয়োগকারী পুঁজিবাজারে আসছে।বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ও তত্ত্বাবধায় সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ড. এ বি মির্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, ‘নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাজারে আস্থা ফেরাতে কতিপয় উদ্যোগ নেওয়ায় বিনিয়োগকারীরা এখন আসছে। আস্থা ফিরছে। এতে করে পুঁজিবাজার স্থিতিশীলতার দিকে এগোচ্ছে। এভাবে পুঁজিবাজারকে স্থিতিশীলতার দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।’

Comments: